৫ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ »
Home / পোল্ট্রি বিষয়ক / কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে টারকি পালন করে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে ইদ্রিস আলী

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে টারকি পালন করে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে ইদ্রিস আলী

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে টারকি পালন

সেখ জিয়াউর রহমান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে টারকি মুরগি পালন করে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছেন খামারি ইদ্রিস আলী। পৌরসভার কামারপাড়া এলাকার কৃষক ইদ্রিস দীর্ঘদিন যাবত কৃষি কাজের পাশাপাশি বাণিজ্যিকভাবে ব্রয়লার মুরগি পালন করে আসছিলেন। এ খামারে আর্থিকভাবে লাভবান হলেও শখের বশে তিনি নাগেশ্বরীর প্রথম খামারি হিসেবে টারকি মুরগি পালন শুরু করেন। গত ৮ মাস আগে ঢাকায় অবস্থানরত ছোট ভাই ইউনুছ আলীর পরামর্শে এবং নিজের অভিজ্ঞতার আলোকে এ কাজে হাত দেন। বেশি লাভের আশায় বাণিজ্যিকভাবে খামার গড়ে তোলেন। বর্তমানে তার খামারে ছোট, বড় ও মাঝারি আকারের ৪ শতাধিক মুরগি রয়েছে। মুরগির তুলনায় মোরগ বেশ বড়। টারকি দেখার জন্য দূর দূরান্তের সৌখিন মানুষেরা প্রতিদিন তাঁর বাড়িতে এসে ভিড় জমায়। খামারি জানান, খামারের অধিকাংশ মুরগি এখন ডিম দিচ্ছে। ব্রয়লার মুরগির চেয়ে টারকি মুরগি পালনে অনেক লাভ। একটি টারকি মুরগি ১ হাজার থেকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করা যায়। এছাড়াও তিনি ডিম থেকে বাচ্চা ফুটানোর একটি মেশিন সংগ্রহ করেছেন। তিনি আরো জানান, মুরগির রোগ প্রতিরোধের জন্য উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার সাথে সর্বাক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন, যিনি অনেক পরামর্শ দিয়ে তাঁকে সহযোগিতা করছেন। ঘাস, লাতপাতা খেয়ে এরা জীবন ধারণ করে। তাই খাবার বাবদ খরচ অনেক কম লাগে। উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. এম এ কাদের বলেন, টারকি মুরগির খামার একটি লাভজনক ব্যবসা। এ খামার স্থাপনের মাধ্যমে যুবকরা তাদের আত্মকর্মস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করতে পারে।

আরও পড়ুন...

ছবি: সংগৃহিত

মুরগির খামারই তাদের বড় স্বপ্ন দেখার সাহস দিয়েছে

সাজেদুল আলম, সিরাজগঞ্জ (রায়গঞ্জ) : সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার দেশীগ্রাম ইউনিয়নের চণ্ডীভোগ গ্রামের বাসিন্দা আবদুর রাজ্জাক। …