৬ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ রবিবার ২১ জুলাই ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ »
Home / পোল্ট্রি বিষয়ক / ওরা মুরগির বাচ্চার ফেরিওয়ালা

ওরা মুরগির বাচ্চার ফেরিওয়ালা

মুরগি

ইলিয়াস আরাফাত, স্টাফ রিপোর্টার : যারা বাড়িতে মুরগির পালনের ইচ্ছে মনে রাখেন, তাদের জন্য হ্যাচারি থেকে মুরগির বাচ্চা কেনাটা বেশ কষ্টের। ইচ্ছে থাকলেও দূরে গিয়ে মুরগির বাচ্চা কিনতে যাওয়াটা বেশ কষ্টকর। তবে, মোহাম্মদ আলী এমন মানুষের কষ্ট লাঘব করেছেন অনেকাটাই।

ফেরি করে মুরগির বাচ্চা নিয়ে পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে বিক্রি করেন মোহাম্মাদ আলী। এলাকায় তিনি মুরগি আলী নামে পরিচিত। আলীর বাড়ি নরসিংদী জেলায়।

তিনি গাজীপুর জেলার বিভিন্ন মুরগির বাচ্চা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের কাছে থেকে একদিনের মুরগির বাচ্চা সংগ্রহ করে বাগমারাসহ আশে পাশের এলাকায় বিক্রি করে থাকেন। দিন শেষে কিছু বাচ্চা অবিক্রিত থাকলে তা নিয়ে কোন হাটে পসরা সাজিয়ে বসেন। এতে তার যা লাভ হয় তা দিয়ে তার ভালোই দিনপথ চলে যায়।

ওই এলাকার মানুষকে এক দিনের মুরগির বাচ্চা কিনতে এখন আর কোন হ্যাচারি ও কোন কোম্পানিকে অর্ডার দিতে হয় না।

ভবানীগঞ্জ হাটে এমন বাচ্চার পসরা নিয়ে বসেন আলী। তিনি ফার্মসঅ্যান্ডফার্মারকে জানান, তার কাছে যে মুরগির বাচ্চা রয়েছে তা অস্ট্রেলিয়ান হাইব্রিড জাতের। এগুলো ৪৫ দিনেই দুই থেকে আড়াই কেজি পরিমাণ ওজন হবে এবং পাঁচ মাস বযস থেকে ডিম দেয়া শুরু করবে। এগুলো দীর্ঘদিন ডিম দেয়।

এক থেকে তিন দিন বয়সী প্রতিটি বাচ্চার মূল্য মাত্র ২০ টাকা। তবে ৫০ থেকে ১০০টির বেশি কিনলে ২ টাকা কমে প্রতিটি বাচ্চার মূল্য রাখছেন ১৮ টাকা। প্রতিদিন তিনি গড়ে ৪০০ থেকে ৫০০ পিস বাচ্চা বিক্রি করেন।

এসব বাচ্চা বিক্রি করে পরিবহন খরচসহ সকল খরচ বাদে তার লাভ টিকে প্রায় ১ থেকে দেড় হাজার টাকা। যারা বাড়িতে ছোটখাট খামার করতে চান তারাই আলীর কাছে বাচ্চা কিনেন।

ফার্মসঅ্যান্ডফার্মার২৪ডটকম/মোমিন

আরও পড়ুন...

নৌবা০িনী

‘জাতীয় মৎস্য পুরস্কার ২০১৯’ স্বর্ণপদক পেলো নৌবাহিনী

দেশের মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন ও সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ ব্যবস্থাপনায় অবদানের জন্য ‘জাতীয় মৎস্য পুরস্কার ২০১৯’ …