খামারে রোগ নিয়ন্ত্রণে মুরগিতে লাভবান হওয়ার উপায়

58

মুরগির খামারে রোগ নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে লাভবান হওয়ার উপায় আমাদের দেশের বেশিরভাগ খামারিরাই জানেন না। খামারে মুরগি পালনের অন্যতম প্রতিবন্ধকতা হল মুরগির বিভিন্ন ধরণের রোগ। তবে মুরগির খামারে রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারলে সহজেই লাভবান হওয়া যায়। তবে খামারিদের অদক্ষতার কারণে অনেক সময় মুরগি রোগে আক্রান্ত হয়। চলুন তাহলে জানবো মুরগির খামারে রোগ নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে লাভবান হওয়ার উপায় সম্পর্কে-

মুরগির খামারে রোগ নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে লাভবান হওয়ার উপায়ঃ
১। মুরগির খামারে রোগ নিয়ন্ত্রণের জন্য বয়স ও উপযোগিতা অনুযায়ী নিয়মিত খাদ্য প্রদান করতে হবে। মুরগির প্রদান করা খাদ্য দিয়ে যাতে প্রয়োজনীয় পুষ্টির চাহিদা পূরণ হয় তা খেয়াল রাখতে হবে।

২। মুরগির খামারে প্রদান করা খাদ্য ও পানির পাত্র নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে। পাত্রের আশাপাশে খাদ্য পড়ে গেলে বা স্যাঁতস্যাঁতে হলে তা দ্রুত সরিয়ে ফেলতে হবে।

৩। খামারে পালন করা মুরগির জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে আলো ও বাতাসের ব্যবস্থা রাখতে হবে। তবে শীতের দিনে মুরগি খামারে বাতাস প্রবাহ সীমিত রাখতে হবে। দরকার হলে মুরগির খামারের চারদিকে পর্দা দিয়ে দিতে হবে।

৪। মুরগির খামারের লিটার নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করতে হবে। খামারের লিটার স্যাঁতস্যাঁতে বা ব্যবহারের অনুপযোগী হলে তা দ্রুত পরিবর্তন করে দিতে হবে।

৫। খামারের মুরগির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে হবে কিছু দিন পর পর। মুরগির খামারে প্রয়োজন অনুযায়ী রোগ প্রতিরোধের জন্য টিকার ব্যবহার করতে হবে।

৬। খামারে পালন করা মুরগিগুলোকে যাতে পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা যায় সেই ব্যবস্থা রাখতে হবে।

ফার্মসএন্ডফার্মার/ ১৪জুন ২০২১