গরুর খামার তৈরিতে যে বিষয়গুলোকে অধিক গুরুত্ব দিতে হবে

51

খামারের স্থান নির্বাচনঃ

অনেক খোলামেলা আলো-বাতাস যাওয়া আসা করে, প্রচুর ঘাস করা যাবে এমন জায়গা গরুর খামারের জন্য নির্বাচন করতে হবে। জায়গা অবশ্যই উচু হতে হবে যাতে করে বর্ষায় সময় পানি না ওঠে। অনেক নিড়িবিলি জায়গা যদি হয় সেখানে সঠিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে।গরুর জাত নির্বাচনঃখামারে লাভবান হওয়ার জন্য ভালো জাতের গরুর বিকল্প নেই। একমাত্র ভাল গরুর জাত ই আপনার ফার্ম কে লাভজনক ব্যবসাতে পরিণত করতে পারে।

গরুর খাদ্য ব্যবস্থাপনাঃ

আমরা গরুকে অনেকে অনেক কিছু খাওয়াই। গরু যদি হজম করে ফেলতে পারে খুবই ভাল কিন্তু ভাল মানের খাবার পাওয়া কঠিন ব্যপার হয়ে দাড়িয়েছে। আপনি শুধু ভুষি-কুড়া-খড়-ঘাস খাওয়ান কিন্তু মান ভাল দিতে হবে। গরুকে যত দিবেন ও খেতেই থাকবে। ব্যয় আর আয় সাথে সামজ্জস্য রেখে খাওয়াতে হবে না হলে সব হিসেব করে দেখবেন আয় এর থেকে ব্যয়ই বেশী হয়ে গেছে আর আপনার লোকসানের বোঝা দিন দিন বেড়েই চলছে।

দক্ষ কর্মচারীঃ

খামারকে লাভজনক করার জন্য এটা অত্যান্ত জরুরী। একজন দক্ষ কর্মচারী আপনাকে ভাল পরামর্শ দিতে পারবে যা হয়তো আপনি জানেনও না। গরু লালন পালন এ কিছু ব্যাপার থাকে যা অনেক কিছু চোখে দেখে বুঝতে হয় যেমনঃ একটা গরু অসুস্থ কিনা তার আচার আচরন, খাবার গ্রহন এর ধরন ইত্যাদি দেখেই একজন দক্ষ কর্মচারী বলে দিতে পারে যা আপনি আমি এখন হয়তো বুঝবোই না।

আপনার আর্থিক ব্যবস্থাপনাঃ

অনেকেই প্রথমেই ব্যাংক লোন করে ব্যবসা শুরু করতে চায়। আগে ছোট করে শুরু করেন নিজের যতটুকু আর্থিক সঙ্গতি আছে। যদি নিজে থেকে করতে পারেন তাহলেতো খুবই ভাল আর যদি নিজে না থাকেন কর্মচারী রাখতে হয় তাহলে কর্মচারীর বেতন দিয়ে কত টাকা হাতে থাকবে তার একটা হিসেব করে বের করতে হবে যে কত টাকা এখন বিনিয়োগ করলে সব মিলিয়ে আপনার লোকসান হবে না।ডা

লেখক:
মোঃ শাহীন মিয়া
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা
বিসিএস প্রাণিসম্পদ

ফার্মসএন্ডফার্মার/১৯নভেম্বর২০২০