ত্রিশালে বিদ্যুৎ না থাকায় গরমে মারা গেল তিন শতাধিক মুরগি

86

ত্রিশালে প্রচণ্ড গরম ও লোডশেডিংয়ে একটি পোলট্রি খামারের তিন শতাধিক ব্রয়লার মুরগি মারা গেছে। এতে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন খামার-মালিক মাহাবুব হাসান কনক। রোববার দুপুরে উপজেলার সাখুয়া ইউনিয়নের নওপাড়া গ্রামের মাহাবুব খামারের মাহবুব হাসানের পোলট্রিতে ২ হাজার মুরগির শেড থেকে ১ কেজি ৬০০ গ্রাম ওজনের তিন শতাধিক মুরগি মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, মাহাবুব গত বছর থেকে বাড়ির পাশে একটি খামারে ব্রয়লার মুরগি পালন করে আসছেন। শুক্র ও শনিবার প্রচণ্ড গরমে লোডশেডিংয়ের কবলে পড়ে পুরো এলাকা। বিদ্যুৎ বিভাগকে বার বার ফোন দিয়ে কোনো সাড়া পাননি ঐ খামার-মালিক। বেলা ১টার দিকে মুরগিগুলো মারা যায়। খামার-মালিকের ছোট ভাই ফাহাদ বিন সাঈদ বলেন, প্রচণ্ড গরমে পূর্ব ঘোষণা ছাড়া সাড়ে ৪ ঘণ্টার বেশি সময় বিদ্যুৎ না থাকায় আমাদের তিন শতাধিক মুরগি মারা যায়। এতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়। বাকি মুরগিগুলোও অসুস্থ হয়ে পড়ায় বিক্রির অনুপযোগী হয়ে পড়ে। বিষয়টি অবগত করলেও বিদ্যুত্ অফিসের লোকজন কোনো ব্যবস্থা নেননি।

ত্রিশাল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম মোশারফ হোসেন বলেন,‘ বিদ্যুতের লাইন সংক্রান্ত গাছের ডালপালা কাটার জন্য ঐ সময়টুকু বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ ছিল। এ বিষয়ে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন পরিচিতজনকে জানানো হয়েছে। তবে যে কোনো কারণে হয় তো তাকে জানানো সম্ভব হয়নি। তবে এ বিষয়ে তিনিও আমাকে ফোন করে কিছু জানাননি।’