প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে গরুর ক্ষুরা রোগের চিকিৎসা

57

কিভাবে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা করা যায় প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে সেই ব্যাপারে কিছু আলোচনা করা হল।

যেভাবে জিহ্বার ঘা শুকানো যায়

২০ গ্রাম পরিমাণ সোহাগা নিবেন। এরপর সোহাগা একটি সমান টিনের টুকরা বা তাওয়াতে নিয়ে গরম করবেন।দেখবেন সোহাগা খৈ এর মত ফুটবে,এরপর সেটা ভালো মত পিষে ৪০মি.লি. পরিমাণ মধুর সাথে মিশিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরী করবেন।

এই মিশ্রণ টি আক্রান্ত গরুর মুখের ভিতরে এবং জিহ্বাতে দিনে দুই বার ভালো করে লাগিয়ে দিবেন।২/৩ দিন লাগাবেন।
ইনশাআল্লাহ আক্রান্ত গরুর মুখ ও জিহ্বার ঘা অতি দ্রুত শুকিয়ে যাবে।

ক্ষুরার ঘা কিভাবে শুকানোর উপায়

প্রথমে ৫০ মিঃলিঃ নারিকেল তেল,২০ গ্রাম কর্পূর (সাদা ঝাঁঝালো গন্ধ বিশিষ্ট পাউডার),১০ গ্রাম শুকনা তামাক পাতা (হাদা বা সাদা পাতা) চূর্ণ একসাথে মিশিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরী করবেন।

এর পর গরুর ক্ষুরা ভালো ভাবে পটাশের পানি দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিবেন। তারপর তৈরীকৃত মিশ্রণ টি ক্ষুরার ফাঁক এবং ঘা-তে ভালো করে লাগিয়ে দিবেন দিনে দুইবার। ২/৩ দিন লাগালেই ইনশাআল্লাহ দ্রুত ক্ষুরার ঘা শুকিয়ে আসবে।

এছাড়াও ক্ষুরা রোগের কারণে গরুর গায়ের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে বা জ্বর আসলে ৩০ মিঃলিঃ তুলসী পাতার রস দুই চা চামচ মধুর সাথে মিশিয়ে খাইয়ে দিবেন দুই বেলা। জ্বর কমে যাবে। তাপমাত্রা স্বাভাবিক না হলে ২/৩ দিন খাওয়াবেন।

ক্ষুরা রোগ হলে গরুর সেবা যদি উপরোল্লিখিত ভাবে আপনারা করতে পারেন তাহলে রোগের তীব্রতা দেখা দিবে না এবং গরু সম্ভাব্য জটিলতা গুলি এড়িয়ে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে। মনে রাখবেন যদি সঠিক ভাবে আগে থেকেই এই রোগের টিকা যদি গরুকে দেওয়া হয় তবে আপনার গরুকে আপনি ক্ষুরা রোগের অভিশাপ থেকে বাঁচাতে পারেন।

ফার্মসএন্ডফার্মার/ ০৬ মে ২০২১