মুরগির বাচ্চার ব্রুডিং সঠিকভাবে হচ্ছে কিনা তা চেক করার ৩ টি উপায়

50

একদিনের বাচ্চার ব্রুডিং ম্যানেজমেন্টের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ টার্গেট হলো প্রথম কয়েকঘন্টার মধ্যে বাচ্চাকে বেশী পরিমানে খাবার এবং পানি খাওয়ানো। প্রথম ঘন্টায় বাচ্চা যত কম খাবে তার বৃদ্ধির হারও তত খারাপ হবে। এবং এর ফলে বাচ্চার ওজন কম আসবে এবং মুরগী ছোট বড় হয়ে যাবে।

বাচ্চার ব্রুডিং ভাল হচ্ছে কিনা তার জন্য প্রথম ঘন্টায় কিছু বাচ্চা পরীক্ষা করতে হবে। এ বিষয়গুলো হলো:-

১। বাচ্চার পা আপনার ঘাড়ে অথবা মুখের উপর লাগান অথবা বাচ্চা কতটুকু গরম বা ঠান্ডা আছে সেটি দেখুন:-
ঘরের মেঝে কতটুকু গরম আছে কিংবা বাচ্চার শরীরের ভিতরে কতটুকু গরম আছে সেটা বুঝার সব থেকে ভালো উপায় হলো বাচ্চার পা কতটুকু গরম। যদি প্রথম ঘন্টা পর বাচ্চার পা ঠান্ডা থাকে তা হলে বুঝতে হবে ব্রুডার ঠিক মত কাজ করছে না এবং বাচ্চা আসার আগে ঠিকমত তাপ জ্বালিয়ে রাখা হয়নি

২। বাচ্চার দিকে তাকিয়ে বুঝতে হবে বাচ্চা সঠিক তাপ পাচ্ছে কিনা কিংবা গাদাগাগাদাগাদি করছে কিনা:-
বাচ্চা সঠিক তাপ না পেলে খাবার এবং পানি পান করবে না। এবং বাচ্চা ব্রুডারে ভিতরে গাদাগাদি করবে এ ছাড়া বাচ্চা সঠিক ভাবে দৌড়াবে না কিংবা খেলবে না।

৩। বাচ্চা আসার আট ঘন্টা পর ক্রপটেস্ট করা:-
বাচ্চা ছাড়ার ১ ঘন্টা পর ক্রপ(খাদ্যথলী) পরীক্ষা করতে হবে। ৮ ঘন্টা পর পুনরায় পরীক্ষার সময় ৮৫% বাচ্চার ক্রপ পরিপূর্ণ থাকতে হবে (খাদ্য এবং পানিতে)। বাচ্চার ছাড়ার ১২ ঘন্টা পর ৯৫% বাচ্চার ক্রপ পরিপূর্ণ থাকতে হবে।

উপরের তিনটি পরিক্ষা আপনাকে বলে দিবে বাচ্চার ব্রুডিং কেমন হচ্ছে। সঠিক নিয়ম মেনে চললে বাচ্চার বৃদ্ধি এবং লাভ দুটোই আপনার নিয়ন্ত্রনে থাকবে।

ফার্মসএন্ডফার্মার/১২মে ২০২২