মুরগীর গাউট রোগের কারন, লক্ষণ ও চিকিৎসা পদ্ধতি

36

গাউট রোগের লক্ষণসমূহ: হঠাৎ মৃত্যু। পায়ুপথের চারপাশে প্রচুর ইউরেটস মিশ্রিত থাকে যা দেখতে সাদা চুনের মত মনে হয়। দীর্ঘস্থায়ী সমস্যার ক্ষেত্রে শ্বাসনালী , মাথার ঝৃটি, কানের লতি ইত্যাদিতে ও ইউরেটস দেখা যায়।

ভিসেরাল গাউটের সাথে যদি আর্টিকুলার গাউট থাকে তবে সেক্ষেত্রে পায়ের জয়েন্টের ভিতর সাদা তরল (ইউরেটস) জমা থাকে এবং পায়ের তলার ও উপরে ইউরেটস জমা হয়ে শত্ত গুটির (Nodules) মত তৈরি হয়। ঝিমানো, পানি স্বল্পতা এবং কিছু ক্ষেত্রে সবুজাভ পাতলা পায়খানা হয়। আক্রান্ত মুরগির শারীরিক দূর্বলতা দেখা যায়, উসখো খুসকো পালক ও ভেজা পায়ু পথ দেখা যায়। পায়ুপথের চারপাশে প্রচুর ইউরেটস মিশ্রিত বিষ্ঠা লেগে থাকে যা দেখতে সাদা চকের গুড়ার মত।

পোস্টমর্টেম তথ্যাদি: হ্নদপিন্ড, কলিজা, বৃক্ক এবং ফুসফুস এ চকের মত সাদা বস্তু (white chalky deposits) দেখা যায়। বৃক্কে ফোটা ফোটা রত্তক্ষরণ (Pin point) দেখা যায়।

চিকিৎসা
টক্সিন , ভিনেগার, এডি ই, স্যালাইন।

অথবাঃ কিডনি কেয়ার
লিভার টনিক
এ্যালোপিউরিনল জাতীয় ওষুধ