৩১ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯
Home / মৎস্য বিষয়ক / পুকুরেই মলা মাছ কিভাবে চাষ করবেন বিস্তারিত জেনে নিন

পুকুরেই মলা মাছ কিভাবে চাষ করবেন বিস্তারিত জেনে নিন

মলা মাছ

মলা মাছ সবার কাছে খুব ‍প্রিয় একটি মাছ। অনেক ধরনের ছোট মাছ আছে। এর মধ্যে মলা অত্যন্ত সুস্বাদু এবং পুষ্টিসমৃদ্ধ মাছ। এটি বিল হাওর-বাঁওড়, নদী, ধানক্ষেত, পুকুর ও ডোবায় পাওয়া যায়। এখন পুকুরেই চাষ হয় মলা মাছ।

মানুষ বড় মাছ খেতে অভ্যস্ত তাই জাতীয় ছোট মাছকে অবাঞ্চিত মাছ হিসেবে বিবেচনা করে। কিন্তু এখন পর্যন্ত গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর অধিকাংশই প্রাণিজ আমিষের জন্য নির্ভর করে খাল বিলের মলা মাছসহ অন্যান্য ছোট মাছের উপর।

এ কারণে পুকুর ডোবায় এসব ছোট মাছ চাষের উদ্যোগ গ্রহণ করা প্রয়োজন। মলা মাছ অপেক্ষাকৃত কম অক্সিজেনযুক্ত ও ঘোলা পানিতে চাষ করা যায়। পুকুরেই হতে পারে মলা মাছের চাষ। এখন আর আগের মতো মলা মাছ দেখা যায় না। তাই মলা মাছ সহজ প্রাপ্তির জন্য পুকুরে চাষ করতে হবে।

বিভিন্ন মলা মাছের নাম

এলাকা ভেদে মলা মাছের বিভিন্ন নাম রয়েছে। যেমন-মলা, ময়া, মোয়া, মকা, মুদে, মোলঙ্গী, মলেন্দা ও মৌচি।

প্রজনন

প্রথম বছরেই প্রজননক্ষম হয়। সাধারণত এপ্রিল থেকে অক্টোবরের মাঝামাঝি পর্যন্ত এরা প্রজনন করে থাকে। বছরে কমপক্ষে ২-৩ বার ডিম দেয়।

পুষ্টিগুণ

এই মাছে প্রচুর পরিমাণে আমিষ, ক্যালসিয়াম, আয়রন ও ভিটামিন রয়েছে।

কেমন পুকুর নির্বাচন করবেন

১. মলা মাছের একক চাষের জন্য বাৎসরিক বা মৌসুমী পুকুর নির্বাচন করতে হবে।

২. পুকুরের আয়তন ১০-১৫ শতক এবং গভীরতা ১.০-১.৫ মিটার হতে হবে।

৩. পুকুর পাড়ে বড় গাছপালা থাকলে কেটে ফেলতে হবে বা পুকুরে হেলে পড়া ডাল ছেঁটে দিতে হবে।

৪. প্রয়োজনে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা থাকতে হবে।

৫. আয়াতাকার পুকুর যেখানে পর্যাপ্ত সূর্যালোক ও অবাধ বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা আছে।

পুকুর প্রস্তুত পদ্ধতি

পুকুর শুকিয়ে বা বার বার ঘন ফাঁসের জাল টেনে রাক্ষুসে মাছ দূর করতে হবে। প্রয়োজনে রোটেনন ব্যবহার করতে হবে। প্রতি শতকে ১.০-১.৫ কেজি হারে চুন দিতে হবে। প্রতি শতকে ৫-৭ কেজি হারে গোবর দিতে হবে। পানির রং সবুজাভ হলে পোনা ছাড়তে হবে।

খাবার

মলা মাছের খাবার হিসাবে শুধু মাত্র অটোকুড়া দিলেই চলে। কারণ অটোকুড়া পানিতে ভেসে থাকে এতে করে এই মাছ সহজেই খেতে পারে। এবং এই খাবার পুকুরে দিলে পুকুরের পানিও ঘোলা হয় না। আর মলা মাছ পরিষ্কার পানিতে ভাল হয়।

মাছ আহরণ

মাছ মজুদের ২ মাস পর ঘন ফাঁসের জাল টেনে পোনা ধরার ব্যবস্থা করতে হবে। মাছ মজুদের ২ মাস পর থেকে প্রতি ১৫ দিন পর পর মাছ আহরণ করা যাবে। ৫/৬ মাস পর পুকুরের পানি শুকিয়ে সমস্ত মাছ আহরণ করতে হবে।

বাজারজাতকরণ

পুকুর থেকে মাছ আহরণের পর মলা মাছকে বেশিক্ষণ স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখা যায় না। ২ থেকে ৩ ঘন্টা পর থেকেই মলা মাছ পচে যাওয়া শুরু করে। তাই মলা মাছকে পুকুর থেকে ধরার পর বরফ দিতে হবে। এভাবে মাছ সংরক্ষণ করলে ১২ থেকে ১৮ ঘন্টা পর্যন্ত টাটকা অবস্থায় রাখা যায়।আমাদের দেশে এই মাছের চাহিদা অনেক বেশি। এবং বাজার মূল্যও ভাল। তাই সঠিক পদ্ধতিতে মলা মাছ চাষ করলে অল্প সময়ে অধিক লাভবান হওয়া সম্ভব।

ফার্মসএন্ডফার্মার২৪/জেডএইচ

আরও পড়ুন...

সভা

চট্টগ্রামে ৫০তম বিশ্ব মান দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

‘আমদানি করা মাল্টা নিয়ে কেউ কেউ আত্মীয় বাড়িতে যান বেড়াতে। এ মাল্টা নিয়ে অতিথি গেলে …